রাম মন্দির নিয়ে ফেসবুকে ‘বিতর্কিত’ পোস্ট! হেনস্তার শিকার ছাত্রী, হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষও

রাম মন্দির নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করায় ফের হেনস্তার শিকার এক পড়ুয়া। ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ারের মাদারিহাটে। বিজেপির তরফে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী ও তাঁর মাকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। চড়া সুর দিলীপ ঘোষের গলায়ও।

জানা গিয়েছে, করোনার কারণে আপাতত মাদারিহাটের বাড়িতেই রয়েছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই পড়ুয়া। সম্প্রতি রাম মন্দির নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছিলেন ওই ছাত্রী। বিষয়টি নজরে পড়তেই বিজেপির নেতা-কর্মীরা হুমকি দিতে শুরু করে তাঁকে। সালিশি সভায় ডেকে হেনস্তা করা হয় ওই পড়ুয়া ও তাঁর মাকে। এরপরই ভয়ে আত্মীয়ের বাড়িতে গা ঢাকা দেন তাঁরা। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরই ওই পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন তাঁরা। যদিও নিজেদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মানতে নারাজ স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা। তবে উলটো সুর রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের গলায়।

যাদবপুরের ওই ছাত্রী প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, “যাদবপুরের পড়ুয়ারা বরাবর এসব করে আসছে। তবে রাষ্ট্রবিরোধী এসব আচরণ সহ্য করা হবে না। দেশে পুলিশ-প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা আছে।” এরপরই হুমকির সুরে বিজেপি সাংসদ বলেন, “যারা এসব করছেন তাঁরা এখনই সাবধান হয়ে যান।” দিলীপ ঘোষের মন্তব্য নিয়ে চাপানউতোর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই রাম মন্দির নিয়ে পোস্ট করায় বিজেপি কর্মীদের দ্বারা হেনস্তা শিকার হতে হয়েছিল কোচবিহারের বাসিন্দা এক ডাক্তারি পড়ুয়াকে। লাগাতার হুমকির মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। হাত জোড় করে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করা হয়েছিল। সেই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। কয়েকদিনের ব্যবধানে ফের একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি।

মন্তব্য করুন

আপনার ইমেইল প্রকাশ করা হবে না

আপনি এই HTML ট্যাগ এবং মার্কআপগুলো ব্যবহার করতে পারেন: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

*